যৌন অক্ষমতা : পুরুষের দ্রুত স্খলন সমস্যার স্থায়ী সমাধান

হাকীম এফ শাহজাহান :: পুরুষের যৌন অক্ষমতা বা Sexual Debility এর সবচেয়ে বেশি সমস্যা হচ্ছে Premature Ejaculation বা দ্রুত স্খলন। মিলনে পুরুষের দ্রুত স্খলন বা সঙ্গিনীকে সময় দিতে না পারা। এরফলে পুরুষ তার সঙ্গিনীর Orgasm ঘটাতে ব্যর্থ হন। এর ফলে জীবনের সবকিছু তছনছ হয়ে যাওয়ার মত অবস্থা হয়ে যায়। নিজেকে খুবই তুচ্ছ মনে হয়। অনেক পুরুষ বেঁচে থাকার কোন স্বার্থকতাই খুঁজে পান না।
এই সমস্যায় স্ত্রী সঙ্গিনীর চরম পুলক না হতেই পুরুষ সঙ্গি খুব দ্রুত নিষ্ক্রিয় এবং নিষ্তেজ হয়ে যায়। যদিও তার যৌনাঙ্গের শিথিলতাও নেই আবার যৌন আকাংখারও অভাবও নেই। সব কিছু ঠিক থাকলেও শুধু দ্রুত স্খলন একজন পুরুষকে সবচেয়ে মারাত্মক বিপর্যয়ের মধ্যে ঠেলে দেয়।
এই সমস্যা বেশিদিন ধরে চললে পুরুষ মানসিক ভাবে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েন এবং এতে করে স্থায়ী যৌনসমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। এটি শুধুই পুরষের যৌন সমস্যা।এই সমস্যা নারীদের হওয়ার সুযোগ নেই।
Premature Ejaculation বা দ্রুত নিষ্ক্রিয় ও নিস্তেজ হয়ে যাওয়া অধিকাংশ পুরুষের একটি জটিল যৌন সমস্যা। যৌনাকাংখা প্রবল, যৌনাঙ্গের শিথিলতাও নেই,অথচ সঙ্গিনীকে সন্তুষ্ট করতে পারছেন না,এর চেয়ে বড় ব্যর্থতা আর কী হতে পার ?
প্রবল আকাংখা অনুভুতি কিংবা মনের ভেতরে যথেষ্ঠ যৌন আগ্রহ থাকা সত্ত্বেও এই সমস্যা যে কোন পুরুষের জীবনে অনেকবার হতে পারে। শুরুতেই ব্যবস্থা নিলে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসা যায়। অবহেলা করলে যৌনজীবন মারাত্মকভঅবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়।
Premature Ejaculation হলে পারিবারিক অশান্তি থেকে শুরু করে আরো অনেক বড় ধরনের অঘটনও ঘটে যায় । এই সমস্যার কারনে স্ত্রীর মনে স্বামীর সম্পর্কে নানা ধরনের সন্দেহ দানা বাঁধতে থাকে। স্বামীর প্রতি অবহেলা অবজ্ঞা তৈরি হয়। স্বামীর প্রতি শ্রদ্ধা সন্মান কমে যায়। যিনি এই সমস্যায় ভোগেন তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন। একপর্যায়ে তিনি শারিরিক এবং মানসিক রোগীতে পরিনত হয়ে যেতে পারেন।
Premature Ejaculation[ প্রিম্যাচিউর ইজাকুলেশন ] যেকোন পুরুষের যৌন জীবনের যে কোন সময় একাধিকবার হতে পারে। কাজেই এটা নিয়ে দু:শ্টিন্তা না করে এর কারন জানতে হবে এবং যথাযথ মেডিসিন ব্যবহার করলেই সুস্থ যৌনজীবন উপভোগ করা সম্ভব হবে।
পুষ্টির অভাব এই যৌন সমস্যার একটা বড় কারণ। অতিরিক্ত রাতজাগা,ঠিকমত ঘুম না হওয়া,ডায়াবেটিসে ভোগা, দীর্ঘদিন উচ্চ রক্তচাপের ওষুধ সেবন,অতিরিক্ত ধুমপান, মাদক সেবনসহ আরো কিছু বদঅভ্যাসের কারণে প্রিম্যাচিউর ইজাকুলেশন হতে পারে।
কাজেই পুষ্টিকর খাবার সঠিক সময়ে সঠিক পরিমানে খেতে হবে। অতিরিক্ত রাত জাগা পরিহার করতে হবে। ৭ ঘন্টা গভীর ঘুম [ Deep Seep or Dreamless Sleep] নিশ্চিত করতে হবে।
Premature Ejaculation এর আরো অনেক কারন থাকলেও আপাতত এগুলো এড়িয়ে চলা এবং যথাযথ মেডিসিন সেবনে আপনি স্বাভাবিক যৌন জীবনে ফিরে আসতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।
Premature Ejaculation বা পুরুষ দ্রুত স্খলন দুর করার জন্য অনেক চিকিৎসা আছে। একটি ফিজিও থেরাপি এবং আরেকটি মেডিসিন থেরাপি । প্রথমে আপনি দুটো থেরাপির মধ্যে যে কোন একটি থেরাপি বেছে নিতে পারেন।
ফিজিও থেরাপিতেও Premature Ejaculation বা পুরুষের দ্রুত স্খলন দুর করা সম্ভব। তবে সেটা অনেক দীর্ঘ সময় ধরে আপনাকে চর্চা করতে হবে। যেটা অনেকের পক্ষেই কন্টিনিউ করা সম্ভব নয়।
মেডিসিন থেরাপি আপনাকে দ্রুত সুস্থ করে তুলবে। তবে মেডিসিন থেরাপির মধ্যে আবার অনেক পথ ও পদ্ধতি আছে। আপনি অ্যালোপ্যাথিক, হোমিওপ্যাথিক, অল্টারনেটিভ, ট্রাডিশনাল, ন্যাচারাল, হার্বাল, ঈস্টার্ণ মেডিসিনের যে কোন একটি বেছে নিতে পারেন। তবে একজন ফিজিশিয়ানই ভালো বুঝবেন আপনার সমস্যা অনুপাতে কোনটি বেশি কার্যকর হবে।
সিনথেটিক মেডিসিন বাদে আপনি যদি অর্গানিক বা ন্যাচারাল মেডিসিনের প্রতি আস্থা রাখেন, তাহলেও বহু রকমের মেডিসিন আছে। হার্বস,শার্বস ,প্লান্টস, মিনারেলস,অ্যানিমেলস, স্টোনস মেডিসিন, মেডিসিনাল সী ফুড, ব্লু মেডিসিন এরকম বেশ কিছু ওষুধ খুবই কার্যকর।
এখন আপনার এই সমস্যা সমাধানের জন্য প্রথমেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া জরুরী। চিকিৎসকই বুঝতে পারবেন কোন প্রকারের ওষুধ কি মাত্রায় সেবন করা আপনার জন্য সুফল দিবে ,কার্যকর হবে এবং আপনি সুস্থ হয়ে উঠবেন ইনশাআল্লাহ।
চিকিৎসা না করে এই সমস্যা পুষে রাখলে আপনি আরো জটিল সমস্যায় পড়বেন। আপনার স্বাভাবিক যৌনজীবন নষ্ট হয়েও যেতে পারে।
আপনি যদি ইউটিউব দেখে দেখে এই গাছ সেই গাছ, অমুক লতা,তুমুক পাতা,অমুক গাছের ছাল,তুমুক গাছের বাকল,এই বড়ি, সেই মালিশ এসব ব্যবহার শুরু করেন,তাহলে বছরের পর বছর ব্যবহার করবেন কিন্তু কোন কাজ হবে না।
কারন ইউটিউবে এই নিয়ে যত ভিডিও আর পদ্ধতির কথা বলা হয়েছে তার প্রায় সবই ভুয়া এবং একশ ভাগ মিথ্যা। ইউটিউবে হাজারে একটা বা লাখে দুই একটা ভিডিও আছে যেগুলো সঠিক । তবে সেগুলোর সাক্ষাত পাওয়াও খুব কঠিন। তাই ইউটিউবে ভরসা করে যদি যৌন সমস্যার সমাধান করতে চান,তাহলে আপনি হতাশ হয়ে বড় ধরনে ক্ষতির সন্মুখীন হতে পারেন।
আপনি যদি একটু সহজ এবং নিরাপদ পথ খোঁজেন,তাহলে হামদর্দ এর ওষুধ বিক্রয় কেন্দ্রে গিয়ে ক্যাপসুল এনডিউরেক্স কিনুন। সকালে এবং রাতে ক্যাপসুল এনডিউরেক্স ১টা করে ১ গ্লাস দুধ অথবা ৬ চামচ সিনকারা অথবা, আধা গ্লাস রুহ আফজার শরবত অথবা সিরাপ আপেলিন অথবা ১ গ্লাস ঠান্ডা পানির সঙ্গে ১ টি করে টানা ৩ সপ্তাহ সেবন করুন। ওষুধ সেবনের সময় প্রথম ১ সপ্তাহ যৌনমিলন থেকে বিরত থাকুন।
আপনি যদি চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার এবং ট্যাবলেট ক্যাপসুল কেনার সামর্থ না রাখেন,তাহলে আপনার জন্য একটি সহজ এবং সস্তা পথ হচ্ছে, আপনি প্রতিদিন সকালে এবং রাতে ১ চা চামচ ১ চামচ শতমূলী চূর্ণ গ্লাস অল্প গরম দুধে মিশিয়ে ৩ সপ্তাহ সেবন করুন। এক সপ্তাহের মধ্যেই আপনার এই সমস্যা ভালো হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।
সতর্কতা :
যৌন জীবনকে কখনোই হালকা করে নিবেন না।সুস্থ ও স্বাভাবিক যৌন জীবন ধরে রাখতে হলে কখনোই জীবনের শেষ চিকিৎসার অমুক দাওয়াখানা তুমুক মন্ত্র সাধক কিংবা পাহাড়ী অশ্বিনী চন্ডাল কিংবা কলিকাতা,বম্বে হার্বাল টাইপের প্রতারকদের খপ্পড়ে পড়বেন না।
সুস্বাস্থ্যের সুখবর
[ শেফা স্মার্ট হাসপাতালের সৌজন্যে পরিবেশিত ]
হাকীম এফ শাহজাহান
ডিইউএমএস
হামদর্দ ইউনানী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল,বগুড়া
০১৭৩৫ ৭০২৭৫২

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *